জাতীয় সংবাদ

ট্রেনে বগি বাড়িয়েও কমছে না দুর্ভোগ

Written by CrimeSearchBD

জাহাঙ্গীর আলম চট্টগ্রাম
ডিজেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে সারা দেশে বাস ধর্মঘটের কারণে দূরপাল্লার যাত্রীদের এখন একমাত্র ভরসা ট্রেন। শুক্রবার সকাল থেকে বাস বন্ধ হয়ে যাওয়ায় রেলস্টেশনগুলোতে যাত্রীদের চাপ বেড়ে যায় কয়েক গুণ। সেই চাপ সামাল দিতে অতিরিক্ত ১৬ বগি যুক্ত করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

শনিবার (৬ নভেম্বর) সর্বশেষ চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার জাফর আলম বিষয় টা নিশ্চিত করেন।

তিনি আরো বলেন, হঠাৎ করে ধর্মঘটের ডাক দেওয়ায় ট্রেনে যাত্রীর চাপ বেড়ে গেছে। টিকেটের জন্য যাত্রীরা স্টেশনে ভিড় জমাচ্ছেন।

প্রাথমিকভাবে পরিস্থিতি সামলাতে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে ট্রেনের বগি বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত হয়েছে।

তিনি বলেন, যাত্রীর চাপ থাকায় শনিবার চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে যাওয়া বিভিন্ন ট্রেনে ১৬টি অতিরিক্ত বগি যোগ করা হয়েছে।

প্রয়োজনে আরও যোগ করা যাবে। প্রতিটি ট্রেনে ২ টি করে বগি বাড়ানো হয়েছে।

শনিবার (৬ নভেম্বর) চট্টগ্রাম থেকে মোট ৮টি ট্রেন ঢাকাসহ বিভিন্ন গন্তব্যে ছেড়ে যাবে। প্রতিটি ট্রেনে ২টি করে মোট ১৬ টি বগি বৃদ্ধি করা হয়েছে। এসব ট্রেনে প্রায় সাড়ে ৫ হাজার যাত্রী পরিবহন করা যাবে।

এদিকে, জ্বালানির দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে পরিবহন মালিকরা শুক্রবার থেকে বাস-ট্রাক চালানো বন্ধ করে দেয়। এ পরিস্থিতিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা যাত্রীদের ট্রেনমুখো হওয়ায় চাপ সামলাতে হচ্ছে রেলওয়েকে। তবে, আগামী কাল রোববার (৭ নভেম্বর) থেকে চট্টগ্রাম মহানগরে গণপরিবহন চলাচল করার ঘোষণা দিয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি বেলায়েত হোসেন বেলাল।

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার প্রতিবাদে হঠাৎ গণপরিবহন বন্ধ করে দেওয়ায় বিপাকে সাধারণ মানুষ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাত কলেজে ভর্তি এবং একদিনে ২৬টি সরকারি চাকরি পরীক্ষা ছাড়াও নানা গুরুত্বপূর্ণ কাজে রাজধানীতে এসে আটকা পড়েছেন বহু মানুষ।

তবে বাস বন্ধ থাকায় টিকিট নেই ট্রেনের। তাই চরম হয়রানির শিকার হচ্ছেন যাত্রীরা। অনেকে জরুরি কাজ থাকায় স্ট্যান্ডিং টিকিট নিয়েই ট্রেনে উঠে পড়ছেন। পুরো রাস্তা ট্রেনের মধ্যে দাঁড়িয়ে থেকেই নিজ নিজ গন্তব্যে পৌঁছাচ্ছেন।

About the author

CrimeSearchBD