জাতীয় সংবাদ

পূজামন্ডপে কোন ধরনের ডিজে পার্টি ও আতশবাজি নয়

Written by CrimeSearchBD

জাহাঙ্গীর আলম চট্টগ্রাম
চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর বলেছেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজার আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। পূজাকে কেন্দ্রকরে উৎসবের আমেজ পুরো দেশে। ব্যতিক্রম নয় চট্টগ্রাম মহানগর। নগরের ২৭৭টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। আর এসব মন্ডপের নিরাপত্তায় পুলিশের পাশাপাশি আনসার সদস্যরা নিয়োজিত থাকবে।

বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) দুপুরে সিএমপি কমিশনার অফিসের সম্মেলন কক্ষে চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকের এ কথা বলেন ।

সিএমপি কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর বলেন, পূজার শুরু থেকে প্রতিমা বিসর্জন পর্যন্ত চট্টগ্রাম মহানগর এলাকায় ট্রাফিক ব্যবস্থাসহ সব ধরনের বিষয় মাথায় রেখে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পূজামন্ডপে কোনো ধরনের ডিজে পার্টি হবে না। কোন ধরনের আতশবাজি না ফুটানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা যেকোনো মাধ্যমে গুজবে কান না দিয়ে পুলিশকে জানানোর অনুরোধ জানাই। পূজার আমেজকে সম্প্রীতি ও আনন্দ উৎসবে পরিণত করতে হবে। কোনো অপরাধকে সুযোগ দেব না। দুই একটি বিশেষায়িত পূজামন্ডপ ছাড়া নির্দিষ্ট ফোর্স রাখা হবে না। মোবাইল টহল টিমের সংখ্যা বাড়াচ্ছি। সব পূজামন্ডপে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

তিনি বলেন, সব পূজামন্ডপে ঢোকার সময় করোনার প্রেক্ষাপটে স্যানিটাইজার, মাস্ক থাকবে। কোনোভাবেই মাস্ক পরা ও স্যানিটাইজার ছাড়া পূজামন্ডপে কেউ যাতে ঢুকতে না পারেন বিষয়টি পূজা উদযাপন পরিষদ নিশ্চিত করবে। দর্শনার্থীরা মন্ডপে জটলা না করে পূজামন্ডপে ঢুকবেন আশা করি। প্রতিমা বিসর্জন সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে শেষ করতে হবে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিরাপত্তা ব্যবস্থা সুচারুরূপে পালন করতে সব গোয়েন্দা সংস্থা ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে পর্যবেক্ষণ করা হবে। পূজার নিরাপত্তার জন্য একাধিক মন্ডপে ক্লোজ-সার্কিট ক্যামেরা বসানো হবে। র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকছে সাদা পোশাকের পুলিশও।

About the author

CrimeSearchBD