ক্রাইম জাতীয় সংবাদ রাজধানী সারাদেশ

থানায় তদবিরে গিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা মামলার আসামী গ্রেফতার

Written by CrimeSearchBD

স্টাফ রিপোর্টার:
থানায় তদবির করতে গিয়ে গ্রেফতারে হয়েছে ধর্ষণ চেষ্টা মামলার আসামী এসএম সোহাগ আহমেদ।

বুধবার (৬ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮ টায় রাজধানীর কদমতলী থানা পুলিশ তাকে থানায় একটি বেকারির মালিকের পক্ষে তদবির মীমাংসা করতে গেলে গ্রেফতার করে।

এসএম সোহাগ আহমেদ একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সাংবাদিক বলে জানা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০২১ সালের ১৭ জানুয়ারি সোহাগের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে মামলা করে গৃহবধূ রুনা (ছদ্মনাম)।

ভুক্তভোগী অভিযোগ করে বলেন, আমার স্বামী আর সোহাগ তার দুজনে বন্ধু। স্বামীর সঙ্গে আমার ছোটো-খাটো বিষয়ে ঝামেলা হলে, সোহাগ বিষয়টি জানতে পেরে মীমাংসা করে দিবে বলে আশ্বাস দেন। সমস্যার সমাধান করে দেওয়ার কথা বলে আমাকে নির্জন স্থানে ডেকে নিয়ে অনৈতিক সম্পর্ক করার কথা বলেন। আমি তার অনৈতিক সম্পর্কে রাজি না হলে সে আমাকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করেন।
এ বিষয়ে গত ১২/১২/২০২০ ভুক্তভোগী কদমতলী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি নং ৮৪২) করেন।

ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে গৃহিণী আরও বলেন, সাংবাদিক সোহাগ আমাকে একাধিকবার ধর্ষণের চেষ্টা করেন। ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে সে আমাকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদান করে থাকেন। সোহাগ আরও বলেন এই ঘটনা যদি গোপন রাখা না হয় তাহলে তোমার বারোটা বাজিয়ে ছারবো। আমি সোহাগের লালসার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ২০২১ সালের ১৭ জানুয়ারি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে একটি মামলা দায়ের করি। উক্ত মামলায় সে দীর্ঘদিন যাবত পুলিশের চোখকে ফাকি দিয়ে আসছিল।

সূত্রে জানা যায় ইতিপূর্বে ২০১৮ সালের জুলাই মাসে সে রাজধানীর সনিরাখরায় একটি ভুয়া ক্লিনিকের পক্ষে দালালি করার অপরাধে মামলা খায় ও বাদীর সাথে মীমাংসায় মামলা থেকে অব্যবহিত নেয়।

এছাড়াও তার বিরুদ্ধে কদমতলী থানায় একাধিক সাধারণ ডায়েরি ও অভিযোগের সন্ধান পাওয়া যায়। চ্যানেল এর পরিচয় সে বিভিন্ন মানুষকে ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদাবাজি করত বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। বিভিন্ন কারখানায় তার নামে মাসিক চাঁদা চলমান ছিল বলে ব্যাবসায়ী গণ অভিযোগ করেন।
তার গ্রেফতারে এলাকায় সস্তি নেমে আসে। এলাকাবাসী তার অত্যাচারে অতিষ্ট ছিল বিধায় সোহাগের গ্রেফতার সংবাদে এলাকায় মিষ্টি বিতরণ হয়। তার বাড়ি বাগেরহাট হওয়া সত্বও সে নিজের বাড়ি গোপালগঞ্জ বলে পরিচয় দিত।

কদমতলী থানার অফিসার ইনচার্জ ( ওসি) প্রলয় কুমার দাস বলেন, কোর্ট থেকে গ্রেফতারি ওয়ারেন্ট হওয়ার ভিত্তিতে এস এম সোহাগকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

About the author

CrimeSearchBD