ইসলাম

হজ: বাংলাদেশিদের এখনও মেলেনি সৌদির বার্তা

Written by CrimeSearchBD

চলতি বছর সৌদি আরব বিভিন্ন দেশ থেকে ৪৫ হাজার হজযাত্রীকে হজ পালনের অনুমতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেও কোন দেশ থেকে কত জন যেতে পারবেন তা এখনও জানানো হয়নি। বাংলাদেশিরা এই সুযোগ আদৌ পাবেন কি না তা এখনও নিশ্চিত নয় ধর্ম মন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে সৌদি হজ মন্ত্রণালয় থেকে এখনও কোনো বার্তা পায়নি বাংলাদেশ।

তবে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নূরুল ইসলাম জানিয়েছেন, তারা এখনও আশাবাদী সৌদি আরবের শর্ত মেনে বাংলাদেশের নির্দিষ্টসংখ্যক মানুষ এবার হজে যেতে পারবেন।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, করোনার কারণে গত বছরও সৌদি আরবের বাইরে থেকে কাউকে হজ পালনের অনুমতি দেওয়া হয়নি। দুই ডোজ করোনার টিকা নেওয়াসহ বেশ কিছু শর্তে ১৫ হাজার সৌদি নাগরিক এবং ৪৫ হাজার বিদেশি নাগরিককে এবার সীমিত আকারে হজে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি সরকার। তবে করোনায় বর্তমান বিশে^র বড় মনোযোগ এখন ভারতের দিকে। ভারতীয় করোনা ভ্যারিয়েন্ট বাংলাদেশেও এসেছে। এই অবস্থায় বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে হজ পালনের সম্ভাবনা ক্রমেই সঙ্কুচিত হয়ে আসছে। তাই বাংলাদেশের মুসল্লিরা হজ পালনের অনুমতি পাবেন কি না, তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, জুলাই মাসে অনুষ্ঠিতব্য হজে বিশে^র বিভিন্ন দেশের ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সি নাগরিকরা অংশগ্রহণের সুযোগ পাবেন। বিদেশি হজযাত্রীদের টিকার প্রথম ডোজ ঈদুল ফিতরের আগে এবং দ্বিতীয় ডোজ সৌদি আরবে পৌঁছানোর ১৪ দিন আগে নিতে হবে। এ বছর ৬১ হাজার মুসল্লি বাংলাদেশ থেকে হজ পালনের জন্য টাকা জমা দিয়ে চূড়ান্ত নিবন্ধন করলেও পরে টাকা ফেরত নিয়েছেন ৬ হাজার জন। এবার সরকারিভাবে হজে যাওয়ার জন্য নিবন্ধিত রয়েছেন প্রায় ৭ হাজার।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, এবার কোন দেশ থেকে কত জন নেওয়া হবে, তাদের জন্য কী শর্ত দেওয়া হবে, সার্বিক ব্যবস্থাপনা কী হবে, সে বিষয়ে সৌদি সরকারের পক্ষ থেকে এখনও কিছু জানানো হয়নি। সৌদি সরকার যেসব দেশকে হজে যাওয়ার অনুমতি দেবে, শুধু সেসব দেশের মানুষই হজ পালনের সুযোগ পাবেন। মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, হজ শুরু হওয়ার অন্তত পাঁচ মাস আগে বাংলাদেশ থেকে হজ-যাত্রার চূড়ান্ত প্রস্তুতি শুরু করা হয়।

চাঁদ দেখা যাওয়া সাপেক্ষে আগামী ২১ জুলাই ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হতে পারে। আর হজ শুরু হতে পারে ১৯ জুলাই। সেই হিসাবে গত মার্চ মাসেই হজ গমনেচ্ছুদের যাত্রার বিমান শিডিউল ঠিক হওয়ার কথা। কিন্তু এ বছর হজের সময় আর মাত্র পৌনে দুই মাস বাকি থাকলেও এখনও সৌদি আরব থেকে হজের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত না পাওয়ায় প্রস্তুতি শুরু করা যাচ্ছে না। এ কারণে এবার বাংলাদেশ থেকে হজে যাওয়া যাবে কি না, তা নিয়ে অশ্চিয়তা থেকেই যাচ্ছে। এ পরিস্থিতি পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত চলতি বছর হজের বিষয়ে কোনো ধরনের আর্থিক লেনদেন না করার জন্য হজে গমনেচ্ছুদের সতর্ক করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নুরুল ইসলাম জানান, যতক্ষণ না পর্যন্ত সৌদি সরকারের অনুমতি পাওয়া যাচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত অনিশ্চয়তা থেকেই যাচ্ছে। তবে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকলে সরকার আশাবাদী কিছুসংখ্যক বাংলাদেশি এবার হজে যেতে পারবেন। কত জন যেতে পারবেন সৌদি আরব থেকে তা জানানোর পর বাংলাদেশে নিবন্ধন করা মুসল্লিদের ভেতর থেকে শর্ত মেনে নির্ধারণ করা হবে। সৌদি আরব যত জনের হজ পালনের সুযোগ দেবে, তাদের দ্রুত পাঠানোর মতো প্রস্তুতি আমাদের আছে।

হজ এজেন্সি মালিকদের সংগঠন হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) সভাপতি এম শাহাদত হোসাইন তসলিম বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ থেকে কত জন হজযাত্রী পবিত্র হজ পালন করতে পারবেন বা আদৌ যেতে পারবেন কি না, সেই সিদ্ধান্ত দেবে সৌদি সরকার। কিন্তু এখনও কোনো সিদ্ধান্ত না জানানোর কারণে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে।

তবে হজে পাঠানোর প্রস্তুতি রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, হাজিদের টিকা নিয়ে রাখা হয়েছে। সৌদি অনুমতি দিলে আমরা বিমান ভাড়া করব। তিনি বলেন, কত জন যেতে পারবেন তা সৌদি সরকার জানালে কারা যেতে পারবেন তা আমাদের সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে ঠিক করা হবে।

About the author

CrimeSearchBD