আন্তর্জাতিক

সাত মুসলিম দেশের বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা বাতিল করছেন বাইডেন

Written by CrimeSearchBD

ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হারিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। আগামী ২০ জানুয়ারি তিনি প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রথমে বাইডেন যে পদক্ষেপগুলো নেবেন এরই মধ্যে সে বিষয়ে তিনি তার পরিকল্পনা ঘোষণা করেছেন। বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেওয়া বেশকিছু বিতর্কিত নির্বাহী আদেশ, যার জন্য কংগ্রেসের অনুমোদন দরকার হয় না, সেগুলোকে আগের অবস্থানে নেওয়ার পরিকল্পনা করছেন জো বাইডেন। তালিকায় যেসব পরিকল্পনা রয়েছে তার মধ্যে থাকছে :
১. সাতটি মুসলিম দেশের বিরুদ্ধে আরোপিত ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা বাতিল করা হবে। ২. বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত পাল্টে ফেলা হবে। ৩. প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে আবারও যুক্ত হবেন জো বাইডেন। গত বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে ওই চুক্তি থেকে বের হয়ে যায় যুক্তরাষ্ট্র। ৪. শিশু হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করা অনিবন্ধিত অভিবাসীদের অভিবাসী মর্যাদা দেওয়ার ওবামা যুগের নীতি পুনর্বহাল করা হবে।
ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, যেসব মুসলিমপ্রধান দেশের ওপর ডোনাল্ড ট্রাম্প অভিবাসী নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিলেন সেগুলো খুব দ্রুত তিনি বাতিল করবেন। এ ছাড়া নিষেধাজ্ঞার তালিকায় ছিল ইরান, সিরিয়া, লিবিয়া, সোমালিয়া, ইয়েমেন, ভেনেজুয়েলা, উত্তর কোরিয়া, নাইজেরিয়া এবং মিয়ানমার। আফ্রিকার দেশ সুদানও এই তালিকায় ছিল। তবে পরবর্তী সময়ে সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব জোটে যোগ দিয়ে ইয়েমেনে বিরুদ্ধে যুদ্ধে অংশ নেওয়ার কারণে সুদানকে সন্ত্রাসী তালিকা থেকে বাদ দেয় ট্রাম্প প্রশাসন। এ ছাড়া যেসব কিশোর-তরুণ অবৈধভাবে তাদের স্বপ্নপূরণের জন্য আমেরিকায় প্রবেশ করেছে তাদের সে দেশে থাকার অনুমতি দেবেন বলে জানিয়েছেন বাইডেন। তিনি এ সংক্রান্ত আইন পুনর্বহাল করতে চাচ্ছেন।
প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে বেরিয়ে গেছেন। এই চুক্তিও পুনর্বহাল করতে চান জো বাইডেন। এমনকি বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে ট্রাম্প প্রশাসন বেরিয়ে গেলেও বাইডেন তাতে আবার ফিরে আসবেন বলে জানিয়েছেন। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের ব্যর্থতাগুলোকে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছিলেন জো বাইডেন। সেগুলো আমেরিকার জনগণ গ্রহণ করেছে, নির্বাচনের ফলে তার প্রতিফলনও দেখা গেছে। নির্বাচিত হয়েই করোনা টাস্কফোর্স গঠনের কাজ শুরু করেছেন বাইডেন। আজই সে ঘোষণা আসতে পারে। এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে বাইডেনকে প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করা হয়নি। মার্কিন গণমাধ্যম তাকে ‘প্রেসিডেন্ট ইলেক্ট’ বলছে। এর মধ্যেই করোনার সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য বিশেষ টাস্কফোর্স তৈরির পরিকল্পনা সেরে ফেলেছেন জো বাইডেন। আজ এই টাস্কফোর্সের সদস্যদের নাম ঘোষণা করতে পারেন তিনি। আগামী দুমাসের জন্য সাময়িকভাবে গঠন করা হতে পারে এই টাস্কফোর্স। ২০ জানুয়ারি শপথ নেওয়ার পর এই টাস্কফোর্সকেই একটি স্থায়ী চেহারা দেওয়া হতে পারে।
রোববার বাইডেন জানিয়েছেন, দেশের সেরা বিজ্ঞানী এবং চিকিৎসকদের নিয়ে তৈরি হবে এই টাস্কফোর্স। দলটির প্রথম এবং প্রধান কাজ যুক্তরাষ্ট্রে করোনার সংক্রমণ কমানো। দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ কাজ, রোগীদের চিকিৎসার পরিকাঠামো নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া এবং প্রশাসনকে সে বিষয়ে নির্দেশ দেওয়া। ভ্যাকসিন আসার পর তা কীভাবে দেওয়া হবে, তা নিয়েও সিদ্ধান্ত নেবে এ দলটি। আজই (স্থানীয় সময় সোমবার) বাইডেন সাবেক সার্জন বিবেক মার্থির নেতৃত্বাধীন উপদেষ্টা পরিষদের সঙ্গে বসবেন। খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসনের সাবেক কমিশনার ডেভিড ক্যাসলারও থাকবেন এই বৈঠকে। কীভাবে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করা যায় তা নিয়ে নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করবেন। দেশের অর্থনীতি পুনরুদ্ধার ও করোনা মোকাবিলায় তার পরিকল্পনার কথা আজই জানাবেন বাইডেন। নির্বাচনি প্রচারেই করোনা নিয়ে বিদায়ি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে লাগাতার আক্রমণ করেছেন বাইডেন। বারবার অভিযোগ করেছেন, ট্রাম্পের ভুল সিদ্ধান্তের জন্যই করোনা এভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। এত মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ট্রাম্প যেভাবে বিজ্ঞানীদের অপমান করেছেন, পদত্যাগ করতে বাধ্য করেছেন এবং তার তীব্র বিরোধিতা করেছেন বাইডেন। নির্বাচনি প্রচারেই বাইডেন জানিয়ে দিয়েছিলেন, ক্ষমতায় এলে তার প্রথম কাজ হবে মার্কিন স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উন্নতি এবং করোনার টাস্কফোর্স তৈরি করা। বাইডেন জানিয়েছেন, বৈজ্ঞানিক ভিত্তির ওপর তৈরি হবে এই টাস্কফোর্স। টাস্কফোর্স মানুষের জন্য সহানুভূতির সঙ্গে কাজ করবে।
নির্বাচনি প্রচারে আরও একটি দাবি করেছিলেন বাইডেন। ক্ষমতায় এলে গোটা দেশে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করবেন। করোনার জন্য তৈরি টাস্কফোর্স এসব বিষয়ে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা দেবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ছাড়া বাইডেন এ সপ্তাহের মধ্যে ক্যাবিনেট সাজিয়ে ফেলবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। দেশের করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সবরকম ব্যবস্থা নেবেন তিনি।

About the author

CrimeSearchBD