বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের দ্রুত নিয়োগের দাবি বিএমটিপি’র

Written by CrimeSearchBD

রাজস্বখাতে মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের দ্রুত স্থায়ী নিয়োগের দাবি জানিয়েছে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল টেকনোলজিস্ট পরিষদ (বিএমটিপি)।

সোমবার দুপুরে মহাখালীতে সংবাদ সম্মেলন করে এ দাবি জানান সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা।

বিএমটিপি’র নেতারা মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের নিয়োগ প্রদানে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

তারা বলেন, সরকারি পর্যায়ে কর্মরত মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের স্বল্পতার কারণে করোনা রোগীর নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষায় জটিলতা সৃষ্টি হচ্ছে। বিগত ১২ বছর যাবত মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের নিয়োগ বন্ধ থাকার কারণে এরকম পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এই কম সংখ্যক মেডিকেল টেকনোলজিস্ট দিয়ে করোনা মোকাবেলা সম্ভব নয়।

গত ২৮ এপ্রিল বিএমটিপি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, পরিচালক (প্রশাসন) সহ স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে করোনা মহামারি পরিস্থিতি মোকাবেলায় ডাক্তার-নার্সদের নিয়োগের সাথে শূন্যপদ ও নতুন পদ সৃষ্টি করে ২০১৩ সালের আবেদনকারীদের অগ্রাধিকার দিয়ে ১৮ হাজার সকল বিভাগের মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের স্থায়ীভাবে নিয়োগের দাবি জানান। অথচ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সেই ২৮ এপ্রিল ৩৮৬ জনের আউটসোর্সিং নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন।

এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে স্থায়ী নিয়োগের দাবীতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সামনে পরের দিন ২৯ এপ্রিল বিএমটিপি সহ সকল সাধারণ মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা অবস্থান ধর্মঘট ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন এবং ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেন। তারপরও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের টনক নড়েনি।

বঙ্গবন্ধু মেডিকেল টেকনোলজিস্ট পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আশিকুর রহমান বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সংকটময় এই পরিস্থিতিতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দিনরাত করোনাভাইরাস নির্ণয়ের কাজ করছেন ফ্রন্টলাইন যোদ্ধা মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা।

দেশে শূন্য পদ আছে প্রায় ২ হাজার ৭০০। অথচ দেশে বেকার মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের সংখ্যা প্রায় ৪০ হাজার। এরকম প্রশিক্ষিত মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের করোনা মহামারির মতো পরিস্থিতিতে কাজে না লাগিয়ে বেকার বসিয়ে রাখাটা কি ঠিক হচ্ছে?

তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ অনুযায়ী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়/অধিদপ্তর আউটসোর্সিং/চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ বাতিল করে রাজস্বখাতে ২০১৩ সালের আবেদনকারীদের অগ্রাধিকার দিয়ে স্থায়ীভাবে অতিদ্রুত সকল বিভাগের মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের নিয়োগের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, পরিচালক (প্রশাসন)কে আহ্বান জানান।

সেই সাথে আইনি জটিলতা সংক্রান্ত যে সমস্যা স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও যারা মামলার বাদী তাদের দ্রুত সমাধান করার জন্যও আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু মেডিকেল টেকনোলজিস্ট পরিষদ (বিএমটিপি) ২০১২ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের অধিকার আদায়ে কাজ করে আসছেন। সারাদেশের ৫৫ টি জেলায় তাদের জেলা শাখা কমিটি রয়েছে।

গঠনতন্ত্র পরিপন্থী কার্যকলাপ ও সাংগঠনিক কাঠামো ভঙ্গের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থাকার অভিযোগে বর্তমান সভাপতি মোঃ মোশাররফ হোসেন খানকে গত ১২ মে পরিষদ থেকে আজীবন বহিষ্কার করা হয় এবং সহ-সভাপতি জনাব মোঃ গোলাম সারোয়ারকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।

অপর দিকে মেডিকেল টেকনোলজিস্ট পেশার মর্যাদা রক্ষা ও পেশাগত সমস্যা নিরসনে চূড়ান্তভাবে ব্যর্থ হওয়া বাংলাদেশ মেডিকেল টেকনোলজিস্ট এসোসিয়েশন (বিএমটিএ)কে বয়কট করেন বিএমটিপি। সংগঠনকে গতিশীল করার লক্ষ্যে বিএমটিপির জাতীয় কাউন্সিল অল্প সময়ের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান টেকনোলজিস্ট নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বিএমটিপি’র প্রধান উপদেষ্টা মোঃ আলমগীর আহম্মেদ, সভাপতি মোঃ গোলাম সারোয়ার (ভারপ্রাপ্ত), সাধারণ সম্পাদক মোঃ আশিকুর রহমান এবং কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগর কমিটির নেতারা।

About the author

CrimeSearchBD

%d bloggers like this: