লাইফ-স্টাইল

ইফতারে এক গ্লাস তরমুজের শরবত যত উপকারিতা

Written by CrimeSearchBD

গরমে ঘামের সঙ্গে শরীর থেকে অতিরিক্ত পানি বের হয়ে যায়। তাই বাড়তি পানির চাহিদা পূরণে তরমুজের শরবত শরীরে এনে দিতে পারে প্রশান্তি। এছাড়া সর্দি-কাশি, জ্বর এবং ইউরিনের সমস্যায় তরমুজের জুড়ি নেই। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে তরমুজ উপকারী বন্ধু হিসেবে কাজ করে। তরমুজ প্রচুর পরিমাণে লাইকোপেন সমৃদ্ধ। যা কিনা ব্রেস্ট ক্যান্সার এবং প্রস্টেট ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।

চলুন জেনে নেয়া যাক তরমুজের শরবতের বিশেষ ৭ উপকারিতা-

১.কিডনি সুস্থ রাখে

কিডনির জন্য বেশ উপকারি ফল তরমুজের শরবত। ডাবের পানির যে গুণাগুণ, তরমুজের শরবতেও রয়েছে সেই গুণাগুণ। কিডনি ও মূত্রথলিকে বর্জ্যমুক্ত করতে সহায়তা করে এই ফলের শরবত।

২.রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ

পানিশূন্যতা জাতীয় সমস্যা প্রতিরোধ করে তরমুজের শরবত। একই সঙ্গে রক্তচাপ কমায় ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।

৩.চোখ ভালো রাখে

তরমুজের শরবতে থাকা অ্যামাইনো অ্যাসিড ক্রমাগত নাইট্রিক অক্সাইড তৈরি করে রক্তের স্বাভাবিক কার্যপ্রণালী বজায় রাখে। এ ছাড়া তরমুজের শরবতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ ও বিটা ক্যারোটিন, যা চোখ ভালো রাখে।

৪.ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়

তরমুজের শরবত অতিবেগুনি রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষা করে, শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ ছাড়া প্রোস্টেট ক্যানসার, কোলন ক্যানসার ও ফুসফুসের ক্যানসারের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।

৫.তৃষ্ণা মেটায়

গরমে শরীর ঠাণ্ডা রাখতে তরমুজের জুড়ি মেলা ভার। রোজায় ইফতারের সময় তরমুজের শরবত খেলে সহজেই পানির তৃষ্ণা মেটানো যায়।

৬. রূপচর্চার কাজে

তরমুজ দেহের ভেতর থেকে পুষ্টি জোগানোর পাশাপাশি আমাদের ত্বকও সুন্দর রাখে। ভিটামিন এ, বি ও সি সমৃদ্ধ তরমুজ ত্বককে সজীব করে, পাশাপাশি উজ্জ্বল ও নরম রাখে। তাই নির্দ্বিধায় এই ফলটি ব্যবহার করা যায় রূপচর্চার কাজে।

৭. ওজন বাড়ে না

তরমুজের শরবতে খুব কম পরিমাণে ক্যালরি থাকে। আর তাই এটির শরবত খেলে বেশি পরিমাণ ক্যালরি শরীরে প্রবেশ করে না। যত ইচ্ছা শরবত খাওয়া যায় কিন্তু ওজন বাড়ার সম্ভাবনা থাকে না।

About the author

CrimeSearchBD

%d bloggers like this: