সারাদেশ

১ টাকায় এক বেলার খাবার

Written by CrimeSearchBD

দিনাজপুরের হাকিমপুরে করোনা ভাইরাসের সংক্রামণরোধে লকডাউনের কারণে ঘর থেকে বের হতে ও কাজে যেতে না পারায় কর্মহীন হয়ে বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া গরিব অসহায় দুঃস্থ মানুষজন। এমন অবস্থায় তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে এলাকার বিভিন্ন স্কুল-কলেজে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে গঠিত হাকিমপুর ফাউন্ডেশন।

তারা চালু করেছেন মাত্র ১ টাকার দোকান, যেখান থেকে গরিব অসহায় দুঃস্থরা এক টাকা দিয়ে একবেলার খাবারের প্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে পারবেন। এক টাকায় একবেলার আহারের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন এসব গরিব অসহায় দুঃস্থরা।

উপজেলার সীমান্তের চেকপোষ্ট বালুরচর বস্তি, চুড়িপট্টি ও আদিবাসীপাড়াসহ নির্দিষ্ট কিছু এলাকায় যেখানে গরিব অসহায় দুঃস্থ মানুষজনের বসবাস, সেসব এলাকায় এই এক টাকার ভ্রাম্যমাণ দোকান নিয়ে গিয়ে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের মাধ্যমে হাকিমপুর ফাউন্ডেশনের সদস্যরা তাদের মাঝে পণ্য বিক্রি করছেন।

এক টাকার বিনিময়ে প্রত্যেককে দেওয়া হচ্ছে- ১ কেজি করে চাল, আড়াইশ গ্রাম পেঁয়াজ, আড়াইশ গ্রাম আলু, পুইশাক ও মিষ্টি কুমড়া।  হাকিমপুর ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে খাবার ও ইফতার সামগ্রী বিতরণসহ বিভিন্ন ধরনের কর্মসূচি পালন করে আসছে।

হিলি সীমান্তের গোলজার হোসেন ও নাজমা বেগম, রাহেলা বেওয়া, নাজমা বেগম বলেন, আমরা বন্দরে ও বিভিন্ন বাসা বাড়িতে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতাম। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে আজ বেশ কিছুদিন ধরে বাড়ি থেকেই বের হতে পারছি না। যে কারণে কাজেও যেতে পারছি না। এতে আয় রোজগার না থাকায় পরিবার পরিজন নিয়ে বিপাকে পড়েছি।

ছেলেমেয়েদের নিয়ে খাদ্য কষ্টে ভুগছি। পৌরসভা থেকে খাবার দেওয়া হলেও চাহিদার তুলনায় তা অপ্রতুল। এমন অবস্থায় এক টাকায় একবেলার আহার- এমন দোকান আমাদের জন্য আশীর্বাদ হয়ে এসেছে। আমরা প্রতিদিন এই দোকান থেকে এক টাকার বিনিময়ে খাবার কিনছি। যা দিয়ে খাবার রান্না করে ছেলেমেয়ে নিয়ে কোনোরকমে জীবিকা নির্বাহ করছি।

প্রতিদিন বিকেলে বস্তিতে তারা ভ্যানে করে এসব পণ্য নিয়ে আসছেন আর আমরা ১ টাকা দিয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে সেই দোকান থেকে পণ্য কিনছি। তাদের এই দোকান দেওয়ায় আমাদের মতো খেটে খাওয়া গরিব অসহায় মানুষদের জন্য খুব ভালো হয়েছে।

হাকিমপুর ফাউন্ডেশনের সভাপতি মেহেদি হাসান সোহাগ বলেন, হাকিমপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্কুল কলেজে অধ্যায়নরত ৬০ জন ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে হাকিমপুর ফাউন্ডেশন নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গঠন করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রথম দিকে নিজেদের সদস্যদের অর্থায়নে গত ২৬ মার্চ থেকেই এ সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করার পাশাপাশি তাদের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছি।

পরে পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্তসহ বিভিন্ন জনের সহযোগিতায় সেই কার্যক্রম ধারাবাহিকভাবে করে আসছি। সম্প্রতি রমজান শুরু হওয়ায় বিভিন্ন মানুষের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। সেই সাথে চলমান করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউন চলায় সবকিছু বন্ধ থাকায় ও মানুষজনকে বাড়ি থেকে বের হতে নিষেধ করছেন প্রশাসন।

এমন অবস্থায় কাজে যেতে না পেরে বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া নিম্ন আয়ের গরিব অসহায় মানুষজন। তারা খাদ্যকষ্টের মধ্যে রয়েছেন। সেই সব মানুষের কথা চিন্ত করে এক টাকার বিনিময়ে কিছু মানুষকে একবেলার খাবারের প্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহ করার উদ্দেশ্যেই আমাদের হাকিমপুর ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এই এক টাকার দোকানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

উপজেলার বিভিন্ন বস্তিসহ যেসব এলাকায় গরিব অসহায় দুঃস্থ মানুষজন রয়েছে। আমরা ওইসব বস্তি ও গ্রামে ভ্যানে করে পণ্য নিয়ে গিয়ে তাদের মাঝে ১ টাকার বিনিময়ে এসব পণ্য বিক্রি করছি। যতদিন পর্যন্ত করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হবে ততোদিন পর্যন্ত আমাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

About the author

CrimeSearchBD

Leave a Comment

%d bloggers like this: