আন্তর্জাতিক সারাদেশ

জাপানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা

Written by CrimeSearchBD

জাপানের প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন দেশটির বর্তমান সরকারের মন্ত্রিপরিষদের মুখ্যসচিব ইয়োশিহিদে সুগা। সোমবার ক্ষমতাসীন লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (এলডিপি) নেতৃত্ব নির্বাচনের ভোটে ৭১ বছর বয়সি সুগা নিরঙ্কুশ জয় পেয়েছেন। এর ফলে বিদায়ি প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের স্থলাভিষিক্ত হতে যাচ্ছেন তিনি। এলডিপির সভাপতি নির্বাচনের প্রকাশিত ফলাফলে দেখা গেছে, মোট ৫৩৪টি ভোটের মধ্যে ইয়োশিহিদে সুগা পেয়েছেন ৩৭৭ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা পেয়েছেন ৮৯ ভোট আর অপর প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী শিগেরু ইশিবা পেয়েছেন ৬৮ ভোট।
তিনিই যে দেশটির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হবেন তা অনেকটাই নিশ্চিত ছিল। যদিও তিনি ছাড়া সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী শিগেরু ইশিবা, আবের মন্ত্রিসভার সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা, বর্তমান প্রতিরক্ষামন্ত্রী তারো কোনো, বর্তমান উপপ্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকারী তারো আসোর নামও শোনা যাচ্ছিল। তবে সবাইকে হারিয়ে ইয়োশিহিদে সুগাই শিনজো আবের উত্তরসূরি হলেন।
এর আগে ২০০৬ এবং ২০০৭ সালে প্রধানমন্ত্রিত্ব নিয়ে জাপানে ব্যাপক টানাপড়েন শুরু হলে পদত্যাগ করেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। পরে মিত্রদের সঙ্গে জোট গড়ে ২০১২ সালে ফের শিনজো আবের ক্ষমতায় ফেরার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন ৭১ বছর বয়সি ঝানু ও প্রভাবশালী রাজনীতিবিদ ইয়োশিহিদে সুগা।
২০১২-২০ পর্যন্ত আট বছর লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (এলডিপি) নেতা শিনজো আবের শাসনামলে ‘সেকেন্ড ইন কমান্ড’ হিসেবে পরিচিতি থাকলেও পদত্যাগের ঘোষণার সময় পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী নিয়ে প্রশ্ন করা হলে আবে এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি। তিনি শুধু বলেছিলেন, কে নেতা হবে তা পার্লামেন্ট ঠিক করবে। অবশেষে সোমবার পার্লামেন্টেই সুগাকে নির্বাচিত করা হলো। জাপানের সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদের প্রধানমন্ত্রী আবের উত্তরসূরি হিসেবে মন্ত্রিসভাসহ বড় বড় গণমাধ্যমের সমর্থনও ছিল সুগার পক্ষেই। সোফিয়া বিশ^বিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক কোইচি নাকানো বলেছেন, গণমাধ্যম সুগাকে স্থলাভিষিক্ত করে আবের পুরনো মন্ত্রিসভা দিয়েই সরকার চালানোর চেষ্টা চালাচ্ছে।’
২০১২ সালে পুনরায় প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর সুগাকে মন্ত্রিসভার তথা সরকারের শীর্ষপদ ‘চিফ কেবিনেট সেক্রেটারি’ করেন আবে। প্রভাবশালী এ পদের মাধ্যমে তিনি নানামুখী ক্ষমতা পেয়েছেন। যেমনÑ সরকারের শীর্ষ মুখপাত্র হিসেবে কাজ করা এবং নীতিনির্ধারণে সহায়তা ছাড়া আমলাদেরও নিয়ন্ত্রণ করেছেন তিনি।
প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের পর সুগা আবের দেখানো পথে চলবেন বলেই ধারণা করা হচ্ছে। ৭১ বছর বয়সি এই নেতা জানিয়েছেন, তিনি আবে প্রশাসনের অর্থনৈতিক নীতিমালা অনুসরণ করবেন। তিনি বলেন, আমি আবের নীতিমালা অনুসরণ করতে চাই এবং অর্থনীতিকে আরও সম্প্রসারিত করতে চাই।

About the author

CrimeSearchBD

%d bloggers like this: